স্বপ্নপূরণ হলো না গোলাপগঞ্জের ইমরানের

স্বপ্নপূরণ হলো না গোলাপগঞ্জের ইমরানের

ব্রেকিংস ডেস্ক:

 

 
ঘুরে দাঁড়াবার যে স্বপ্ন নিয়ে গ্রীসে যাবার জন্য ঘর থেকে বেরিয়েছিলেন গোলাপগঞ্জের ইমরান আহমদ চৌধুরী, সেই স্বপ্ন পূরণ হলো না। অবৈধপথে তুর্কী থেকে গ্রীসে যাওয়ার পথে গ্রীস সীমান্তেই তিনি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। এমন করুণ খবরে পরিবারে শোকের মাতম বইছে।

মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নিহতের ছোট ভাই সলমান আহমদ চৌধুরী।

ইমরান আহমদ চৌধুরী এবাদের বাড়ি উপজেলার বাঘা ইউনিয়নের দক্ষিণ বাঘা গ্রামে। তিনি মৃত ইকবাল আহমদ চৌধুরীর পুত্র।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ইউরোপে যাওয়ার জন্য প্রায় ২ বছর পূর্বে দেশ ছাড়েন ব্যবসায়ী ইমরান আহমদ চৌধুরী এবাদ। কয়েক মাস পূর্বে তিনি অবৈধভাবে দালালদের মাধ্যমে দুবাই থেকে ইরান হয়ে তুর্কী পৌঁছান। গত কয়েকমাস থেকে ইমরান নিখোঁজ ছিলেন। তার সন্ধান না পেয়ে তুর্কী থেকে গ্রীস পৌঁছে দেয়ার এজেন্সির লোকদের সাথে যোগাযোগ করেন নিহতের ভাই সলমান। কিন্তু এজেন্সির লোক গ্রীসের কুমুদিনী ক্যাম্পে ইমরান আছে বলে তাকে আশ্বস্থ করে। সর্বশেষ গত ৭ সেপ্টেম্বর ভাইয়ের সন্ধান চেয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করেন সলমান। পরদিন বিভিন্ন মাধ্যমে জানতে পারেন, ইমরান ১৮ জুলাই তুর্কী থেকে গ্রীস যাওয়ার পথে গ্রীসের সীমান্তে ঢুকে অসুস্থ হয়ে মারা যান।

তবে কয়েকদিন পূর্বে এক সিরিয়ান নাগরিক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ইমরানের মৃত্যুর সত্যতা নিশ্চিত করে মৃতদেহের সন্ধান দেন।

বর্তমানে নিহতের লাশটি গ্রীসের আলেকজান্দ্রোপলি মর্গে রয়েছে।