মায়ের দুধ কেন জরুরি

মায়ের দুধ কেন জরুরি


ডা. তাহমীনা বেগমপ্রেসিডেন্ট, বাংলাদেশ নিওনেটাল ফোরাম

শিশুর জন্মের পর মায়ের দুধ তার একমাত্র খাবার। ছয় মাস এক্সক্লুসিভ বুকের দুধ পান কেবল শিশুর জন্য নয়, মায়ের জন্যও উপকারী।

শিশুর উপকারিতা

● শিশুর সঠিক শারীরিক বৃদ্ধি ও মানসিক বিকাশের জন্য যা যা উপাদান লাগে, তা সঠিক অনুপাতে কেবল মায়ের দুধেই আছে। তা ছাড়া এটি সহজপাচ্য ও এতে শিশুর অ্যালার্জি হয় না।

● যেসব শিশু মায়ের দুধ পান করে, তাদের নানা সংক্রামক রোগ, যেমন নিউমোনিয়া, শ্বাসতন্ত্রের রোগ, ডায়রিয়া, প্রস্রাবের সংক্রমণ ইত্যাদি 
কম হয়।

● পরবর্তী জীবনে ডায়াবেটিস, হাঁপানি, উচ্চ রক্তচাপ, স্থূলতা, অ্যালার্জি, দাঁতের সমস্যা রোধ করে শৈশবের ব্রেস্ট ফিডিং।

● মায়ের দুধ পান করে, এমন শিশুর বুদ্ধিমত্তা অন্যদের তুলনায় ৯ গুণ বেশি হয় বলে গবেষণায় প্রমাণ পাওয়া গেছে। এ ছাড়া এতে মায়ের সঙ্গে বন্ধনও মজবুত হয়।

মায়ের উপকারিতা

● সন্তান প্রসবের পরপর সন্তানকে দুধ দেওয়া শুরু করলে দ্রুত জরায়ুর সংকোচন হয় এবং রক্তক্ষরণ বন্ধ হয়।

● পরবর্তী সময়ে মায়ের ডায়াবেটিস, হৃদ্‌রোগ, স্তন ক্যানসার ইত্যাদি রোগ প্রতিরোধে এর ভূমিকা আছে। বুকের দুধ দিলে প্রসব–পরবর্তী বিষণ্নতা দূর হয় বলেও গবেষণায় প্রমাণ পাওয়া গেছে।

শালদুধ নিয়ে কিছু কথা

● শিশুর জন্মের পর কয়েক দিন যে দুধ পাওয়া যায়, তার নাম শালদুধ। বলা হয়, শালদুধ শিশুর প্রথম টিকা। কারণ, এতে রোগ প্রতিরোধকারী অ্যান্টিবডি থাকে, যা শিশুকে প্রাথমিক সুরক্ষা দেয়। শালদুধে পর্যাপ্ত আমিষ থাকে, যা শিশুর অপরিণত খাদ্যনালিতে ভালোভাবে শোষিত হয় ও তাকে সুস্থ রাখে।

বিজ্ঞাপন

করোনাকালে ব্রেস্ট ফিডিং

মায়ের করোনা সংক্রমণ হলেও তিনি নিশ্চিন্তে শিশুকে দুধ দিতে পারবেন। সব স্বাস্থ্যবিধি মেনে, মুখে মাস্ক পরে, হাত ভালো করে ধুয়ে তিনি সন্তানকে দুধ দেবেন। যদি তিনি অসুস্থ থাকেন, তবে দুধ পাম্প করে দিলে অন্য কেউ তা চামচ দিয়ে খাওয়াবেন।