বিশ্ববিদ্যালয় খোলা নিয়ে বৈঠকে শিক্ষা মন্ত্রণালয়

বিশ্ববিদ্যালয় খোলা নিয়ে বৈঠকে শিক্ষা মন্ত্রণালয়

ব্রেকিংস ডেস্ক:

প্রায় দেড় বছরের বিরতি শেষে স্কুল-কলেজ খুলে দেয়ার পর বিশ্ববিদ্যালয় চালু করা নিয়ে বৈঠক শুরু করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) ও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের সঙ্গে মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ভার্চুয়াল বৈঠকে বসেন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা।

বৈঠকে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হতে পারে বলে জানিয়েছেন ইউজিসির সচিব ড. ফেরদৌস জামান।

গত ২৬ আগস্ট করোনাভাইরাস প্রতিরোধে গঠিত টেকনিক্যাল কমিটির সঙ্গে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক বৈঠকে ধাপে ধাপে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় খোলার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল। সে বৈঠকে ১৭ অক্টোবর থেকে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার সিদ্ধান্ত হয়।

এর আগে সব বিশ্ববিদ্যালয় থেকে টিকা সংক্রান্ত তথ্য পাঠাতে হবে ইউজিসিতে। শতভাগ টিকার আওতায় আসা বিশ্ববিদ্যালয়গুলো আগে খোলার সিদ্ধান্ত হয় বৈঠকে।

সর্বশেষ বৈঠক নিয়ে শিক্ষাসচিব মাহবুব হোসেন বলেন, ‘বৈঠকে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন, সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা অংশ নিয়েছেন। পরিস্থিতির উন্নতি বিবেচনা করে জাতীয় পরামর্শক কমিটির পরামর্শে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে, তবে অক্টোবরের আগে বিশ্ববিদ্যালয় খুলতে কোনো সমস্যা দেখছি না। এরপরও বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর প্রস্তুতি দেখে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

‘আমরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলতে চাই; তাদের শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করতে চাই। আমরা ক্লাস ওয়ান থেকে টুয়েলভ পর্যন্ত যে খুলেছি, আমাদের উদ্দেশ্য একটাই।’

করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় দ্রুত সময়ের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খুলে দেয়ার কথা ভাবছে সরকার। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের করোনা প্রতিরোধী টিকার আওতায় আনতেও কার্যক্রম চলছে।

দেশে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে ২০২০ সালের ১৭ মার্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হয়। দেড় বছর পর রোববার থেকে খুলে দেয়া হয় প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। সোমবার থেকে মেডিক্যাল কলেজ, ডেন্টাল ও নার্সিং সংক্রান্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা হয়।