মোহাম্মদ হরমুজ আলী

উচ্চতায় হিমালয় সম

উচ্চতায় হিমালয় সম

'আমি হিমালয় দেখিনি, শেখ মুজিবকে দেখেছি'
কথাটা ফিদেল ক্যাস্ট্রো'র
তবে কি সেই উচ্চতাই কাল হলো বাঙালির!
পরিচয়হীন বাঙালিতো অমোঘ ভেবে মেনেই নিয়েছিলো প্রায়, বার কয়েক চেষ্টা করে;
প্রাপ্তির সাথে প্রাপ্যের দূরত্বই বেড়েছে কেবল
সাক্ষাৎ মিলেনি।

দেব কিংবা চন্দ্র, তারও পরে পাল'দের কাল বাংলাতো একধরনের স্বাধীনই ছিলো; 
না, শেষ রক্ষা হলোনা;
মোঘল, পাঠান, তুর্কীদের পালাবদলে
স্বস্তি থাকলেও স্বাধীনতা অপূর্ণই রয়ে গেলো
বৃটিশ বেনিয়াতো আরেক কাটি সরস।

তারপর,
বাংলার বনেদি মাটি ফুঁড়ে তুমি এলে
যে মাটি বর্ষায় লেপ্টে থাকে পরম মায়ায়
আবার হেমন্তে কী রুদ্ররূপ, যেনো 'বিনাযুদ্ধে নাহি দিব সূচ্যগ্র মেদিনী'
ঠিক তোমারই মতো পিতা।

তোমার প্রজন্ম ভরসা করেছিলো পাকিস্তানে
শেষ পর্যন্ত স্বশাসন বুঝি পাখা মেলবে পত্র পল্লবে
শুরুতেই ওদের বিকট নখদন্ত জানান দিলো স্বপ্ন ভঙ্গের
আবারও সেই বন্ধুর পথ, আবারও রক্তের হোলি।

কী যাদুমন্ত্রে একেবারে মর্মমূলে পৌঁছে গেলে মানুষের
এমন নির্ভরতা আর আস্থার প্রতিক্ষায় প্রহর গুনেছে বাঙালি;
দিন-সপ্তাহ-মাস-বছর, অগুনতি বছর,
অতঃপর, একেবারে বিধাতার বর হয়ে এলে
শতবছরের শত প্রার্থনার ফসল।

জাতীয়তাবাদের উন্মেষ পৌঁছে দিলে তুমি অনন্য উচ্চতায়
জাতিরাষ্ট্রের ধারণাতেও বিশ্বাস জন্মালে তুমি।
তোমারই নামে মুক্তিযুদ্ধে সিনা টান করে দাঁড়িয়েছে প্রান দিয়েছে, সম্ভ্রম খুইয়েছে মাথা নোয়ায়নি বাঙালি।
আগামীর পথচলা নির্ঝঞ্ঝাট করতে সংবিধানও দিয়ে গেলে
নতুন মূল্যবোধ রচিত হলো নিযুত বিসর্জনে।
বিশ্বসভায় উঁচু শির তোমার দর্পে উঁচু বুক
কণ্ঠে তোমার ব্জ্রনিনাদ শোষিতের স্বপ্নসুখ।

অথচ,
মাত্র সাড়ে তিন বছর! তারপরই আমরা হিসেবের খাতা খুলে বসলাম
নাকি সেই দশই জানুয়ারি বাহাত্তরেই শুরু করেছিলাম!
ভ্রুক্ষেপহীন তুমি, তেরোটি বছর কাটিয়ে দিয়েছো অন্ধকার প্রকোষ্ঠে
হিসেব তোমার মাথায় আসেনি।

ওরা ঠিকই চিনেছিল তোমায়, যা আমরা পারিনি
সেই যে আটচল্লিশে শিক্ষা-শান্তি-প্রগতির মশাল জ্বালালে
সেদিনের পর থেকে মুহুর্তের জন্যেও পিছু ছাড়েনি তোমার;
ধানমণ্ডির বত্রিশ থেকে ছাপ্পান্ন হাজার বর্গমাইল লাল করা রক্ত তোমার চুইয়ে চুইয়ে বঙ্গোপসাগরে মিশেছে,
ছিন্নভিন্ন করে দিয়েছে তোমার রেণু'র সাজানো বাগান আর বাঙালির হাজার বছরের স্বপ্ন সাধ,
উল্লাসে নৃত্য করেছে পাষণ্ড ঘাতককুল!

শুধু,
নিরবে অশ্রুপাত করেছে স্বাধীনতা আর মুক্তিযুদ্ধের হৃদয়।